প্লেয়িং ইট মাই ওয়ে (বই পরিচিতি)

ক্রিকেটের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি রানের মালিক শচীন টেন্ডুলকার। দি লিটল মাস্টার। ২০১৩ সালে এই জীবন্ত কিংবদন্তীর ২৪ বছরের লম্বা ক্রিকেট ক্যারিয়ারের পরিসমাপ্তি ঘটে।
এই বইতে তিনি নিজের গল্প বলেছেন। সেই ১৬ বছর বয়স থেকে শুরু হওয়া শুরু হওয়া সুদীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারের প্রথমদিন থেকে ২০০তম টেস্টের পরের সেই মন ছুঁয়ে যাওয়া বিদায়ী ভাষণ পর্যন্ত, সব গল্পই এই বইতে করেছেন।
সম্ভবত আর কোনো ক্রিকেট তারকাকে নিয়ে ফ্যানদের আশার পারদ এত বেশি উপরে ওঠেনি। তাই চাপটাও সবসময় একটু বেশিই ছিল।
তিনি শুধু সবচেয়ে বেশি রানের মালিকই নন, টেস্ট ও ওডিআই ক্রিকেটের সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিকও তিনিই।
ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী দলের অংশ হওয়া, আর টেস্ট ক্রিকেট রেঙ্কিং-এ ভারতকে শীর্ষস্থানে নিয়ে যাওয়াকেই জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন মনে করেন তিনি।
এই বইতে জীবনের অর্জনগুলোর কথা যেমন বলেছেন। তেমনি আর দশটা মানুষের মত তার জীবনের ব্যর্থতার, হতাশা, অপূর্ণতার কথাও বলেছেন।
শচীন তার ব্যক্তিগত জীবনকে সবসময়ই আড়াল করে রেখেছেন। এই প্রথমবারের মত তিনি তার অন্য জীবনটার কথা শোনাচ্ছেন।

বই:প্লেয়িং ইট মাই ওয়ে
শচীন টেন্ডুলকারের অটোবায়েগ্রাফী
অনুবাদ: মহিউল ইসলাম মিঠু
হার্ডবাউন্ড প্রকাশক: অন্যধারা
মুদ্রিত মূল্য: ৫০০ টাকা
প্রকাশকাল: ২০১৫

প্রচ্ছদ: ইবুক

ইবুক প্রকাশ: বইটই

প্রকাশকাল: ২০১৯

মূল্য: ৩৯ টাকা

লিংক: https://boitoi.com.bd/book/686/%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B2%E0%A7%87%E0%A7%9F%E0%A6%BF%E0%A6%82-%E0%A6%87%E0%A6%9F-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%87-%E0%A6%93%E0%A7%9F%E0%A7%87

বারকোড স্ক্যান করতে পারেন:

সেইবইতে পেতে ক্লিক করুন এই লিংকে: https://sheiboi.com/Book/BookDetails?bookId=3149

প্রয়োজনীয় লিংক:

রকমারিতে বইটি পাবেন: এখানে

বইটই লিংক: এখানে

গুডরিডস থেকে বইটির ব্যাপারে আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন।

বইটির প্রথম চ্যাপ্টারটা পড়ে দেখতে পারেন- শচীনের ছেলেবেলা

মার্চ ১৬. ২০২০ তারিখে এই বইটি ফিচার করেছিল সেইবই। এব্যাপারে বিস্তারিত পারেন এই লিংকে: http://mithu.info/featured-at-boitoi-sheiboi/

Author: Moheul I Mithu

মহিউল ইসলাম মিঠু কৌতুহলী মানুষ। জানতে ভালোবাসেন। এজন্যই সম্ভবত খুব অল্প বয়সেই বইয়ের প্রতি ভালোবাসা জন্মায়। পড়ার অভ্যাসটাই হয়তো ধীরে ধীরে লেখার দিকে ধাবিত করেছিল। তার পাঠকপ্রিয় অনুবাদ গুলোর মধ্যে রয়েছে: দি হবিট, দি লর্ড অফ দ্য রিংস, পার্সি জ্যাকসন, হার্ড চয়েসেজ, দি আইস ড্রাগন, লিজিয়ন, প্লেয়িং ইট মাই ওয়ে, দি আইভরি চাইল্ড ইত্যাদি। বাংলাদেশে প্রথমসারির জাতীয় পত্রিকা, সংবাদপত্র ও ওয়েবসাইটের জন্য লিখেছেন বিভিন্ন সময়। তিনি বাংলাদেশের প্রথম অনলাইন কিশোর-ম্যাগাজিন ‘আজবদেশ’র প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের একজন। বিশ্বখ্যাত ২০টির বেশি বই অনুবাদ করে বিভিন্ন স্তরের পাঠকের আস্থা অর্জন করেছেন, জিতে নিয়েছেন ভালোবাসা। তার অনুদিত কিছু বই বিভিন্ন সময় জাতীয় বেস্ট-সেলারের তালিকাগুলোতে ছিল। (লিখেছেন: লে: কর্নেল রাশেদুজ্জামান)

Share This Post On

Submit a Comment

Your email address will not be published.

Share via
Copy link
Powered by Social Snap